২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঝড়বৃষ্টিতে দিল্লির তাপমাত্রা কমল ১১ ডিগ্রি, স্বস্তি মানুষের

আপডেট : মে ২৩, ২০২২ ৫:০১ অপরাহ্ণ

18

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

তীব্র দাবদাহের পর বৃষ্টি ও বজ্রঝড় হয়েছে ভারতের জাতীয় রাজধানী অঞ্চল দিল্লিতে। এতে দিল্লির তাপমাত্রা দেড় ঘণ্টায় অনেক কমেছে। একই সঙ্গে বৃষ্টি ও ঝড়ে আজ সোমবার সকালে দিল্লির বেশ কিছু এলাকা বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বিবিসি ও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এই খবর জানিয়েছে।

আজ সকালে দিল্লি ও আশপাশের এলাকায় ভারী বৃষ্টির সঙ্গে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার পর্যন্ত ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যায়। দিল্লি বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি শহরে যানজট তৈরি হয়। ভারতের আবহাওয়া বিভাগ বলছে, স্থানীয় সময় আজ ভোর ৫টা ৪০ মিনিট থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত দিল্লির তাপমাত্রা কমেছে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দিল্লিসহ ভারতের উত্তরাঞ্চলের রাজ্যগুলোয় গত মার্চ থেকে তীব্র দাবদাহ চলছিল। এ মাসের শুরুতে রাজধানী দিল্লির কিছু এলাকার তাপমাত্রা গিয়ে ঠেকে ৪৯ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। দেশটির আবহাওয়া বিভাগ বলছে, আজ সকাল ৭টায় দিল্লির তাপমাত্রা ছিল ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা মে মাসের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, উত্তর প্রদেশে আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ। কারণ হিসেবে ভূমধ্যসাগরে সৃষ্ট ঝড়ের কথা বলা হচ্ছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, চলতি বছর উত্তর ভারতে আগাম গ্রীষ্মকাল শুরু হয়েছে। তীব্র দাবদাহে কোটি কোটি মানুষের জীবন ও জীবিকা হুমকির মুখে পড়ে। ভারতে সাধারণত মে ও জুনে এমন দাবদাহ দেখা যায়।

তবে এ বছর মার্চেই দাবদাহ শুরু হয়েছে। এই সময় ভারতে গড় সর্বোচ্চ তাপমাত্রারও রেকর্ড হয়েছে।

অস্বাভাবিক এই আবহাওয়ার পর দীর্ঘ প্রতীক্ষার বৃষ্টি হওয়ায় তীব্র দাবদাহে নাকাল দিল্লির মানুষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন।

সূত্র: প্রথম আলো




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি