৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

একই স্থানে আ.লীগের দুই গ্রুপের সংবাদ সম্মেলন, ১৪৪ ধারা জারি

আপডেট : মে ৬, ২০২২ ১:১৫ অপরাহ্ণ

118

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার দলীয় কার্যালয় জনতা ভবনে শুক্রবার (৬ মে) একই সময়ে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে আওয়ামী লীগের দুইটি গ্রুপ। এই সংবাদ সম্মেলনকে ঘিরে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (৫ মে) রাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল আমিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এতে বলা হয়েছে, শুক্রবার (৬ মে) সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত জনতা ভবনের ৫০০ বর্গ গজের মধ্যে কোনও ব্যক্তির অনুপ্রবেশ, সমাবেশ, মিছিল, সভার আয়োজন, বাদ্যযন্ত্র বাজানো ও প্রচারণার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ওই স্থানে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপ সংবাদ সম্মেলন ডাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হলো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ আসম ফিরোজ এমপির সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদারের বিরোধ চলছে। উভয় গ্রুপ একাধিকবার পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির আয়োজন করেন। এ বিষয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন দাবি করেন, ‘আবদুল মোতালেব বিভিন্ন কর্মসূচিতে সংগঠনবিরোধী বক্তব্য দেওয়ার প্রতিবাদে জনতা ভবনে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় মিডিয়া কর্মীদের কাছে চিঠি পৌঁছে দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরই তিনি একই স্থানে সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েছন।’

আব্দুল মোতা‌লেব হাওলাদারের দাবি, ‘বিভিন্নভাবে আমার ভাবমূ‌র্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা চলছে। তাই শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

এই বিষয়ে জানিতে আ স ম ফিরোজের মোবাইল ফোনে কল দিয়েও পাওয়া যায়নি।

ইউএনও মো. আল আমিন বলেন, ‘আমরা স‌র্বোচ্চ চেষ্টা করে‌ছি, উভয়প‌ক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে‌ছি। পৃথকভাবে সংবাদ সম্মেলনের পরামর্শ দিয়েছি। কিন্তু উভয়পক্ষ তাদের সিদ্ধান্তে অটল থাকায় ১৪৪ ধারা জারি করতে বাধ্য হয়েছি।’

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, ‘জনতা ভবনের আশপাশে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি