৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পুরো কিয়েভ অঞ্চল পুনর্দখলের দাবি ইউক্রেনের

আপডেট : এপ্রিল ৩, ২০২২ ২:০৫ অপরাহ্ণ

108

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

রুশ বাহিনীর কাছ থেকে রাজধানী কিয়েভের আশপাশের এলাকাগুলো পুনরায় দখলে নেওয়ার দাবি করেছে ইউক্রেন। খবর রয়টার্স।

গত ফেব্রুয়ারিতে রুশ সেনারা আক্রমণ শুরুর পর গতকাল শনিবার প্রথমবারের মতো কিয়েভ ও এর পার্শ্ববর্তী অঞ্চল সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দাবি করল দেশটি।

এ বিষয়ে ইউক্রেনের উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী হান্না মালিয়ার ফেসবুকে লিখেছেন, ‘পুরো কিয়েভ অঞ্চল হানাদারদের হাত থেকে মুক্ত হয়েছে।’

তার এ দাবির বিষয়ে রাশিয়ার কোনো তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

রুশ বাহিনী ইউক্রেনের পূর্ব দিকে যুদ্ধের জন্য পুনরায় সংগঠিত হচ্ছে। তবে কিয়েভের আশপাশের এলাকায় ইউক্রেনের উত্তরাঞ্চলে ধ্বংস হওয়া রাশিয়ান ট্যাংক পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির উপদেষ্টা ওকেকসি আরেস্তোভিচ বলেছেন, চলতি সপ্তাহে ওই এলাকা থেকে রুশ বাহিনী প্রত্যাহার করার পর থেকে ৩০টিরও বেশি শহর ও গ্রাম পুনরুদ্ধার করেছেন তাদের সেনারা।

ইউক্রেন ও তার মিত্ররা বলছে, কিয়েভের কাছে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির পর রাশিয়া তাদের মনোযোগ পূর্ব ইউক্রেনে সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছে।

তবে এসব এলাকা থেকে সেনা প্রত্যাহারকে শান্তি আলোচনার অগ্রগতি হিসেবে দেখছে রাশিয়া।

এ দিকে রুশ সেনারা সরে গেলেও উদ্বেগ কমছে না ইউক্রেনের। শনিবার রাতে এক ভিডিও বার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সতর্ক করে বলেছেন, ‘রাশিয়া ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চল দখল করতে চায়। তাদের লক্ষ্য কী? তারা মূলত এসব এলাকায় তাদের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চাই।’

জেলেনস্কি অবরুদ্ধ দক্ষিণ বন্দর মারিউপোল রক্ষা করায় ইউক্রেনীয় বাহিনীর প্রশংসা করেন। কয়েক সপ্তাহে রাশিয়ার ভারী বোমা হামলায় যা কার্যত নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

এ সপ্তাহের শুরুর দিকে রাশিয়া রাজধানী কিয়েভ এবং উত্তরের শহর চেরনিহিভের আশপাশে যুদ্ধ বিরতি ঘোষণা করে এবং পরে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের দিকে ফোকাস করে।




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি