৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারত-নেপাল যাত্রীবাহী ট্রেন শুরু

আপডেট : এপ্রিল ২, ২০২২ ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

120

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

ভারত ও নেপালের মধ্যে প্রথম যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রা শুরু হলো। আজ শনিবার ভারতে সফররত নেপালের প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে দুই দেশের মধ্যে এই রেল যোগাযোগব্যবস্থা চালু করলেন। দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে দুই প্রধানমন্ত্রী দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের অবসরে এ রেলযাত্রার উদ্বোধন করেন।

ভারতের বিহার প্রদেশের জয়নগর থেকে নেপালের কুরথা পর্যন্ত এ ব্রডগেজ ট্রেন চলবে। দূরত্ব ৩৫ কিলোমিটার। ৬১৯ কোটি টাকা ব্যয়ে গত বছর এই রেল প্রকল্পের কাজ শেষ হয়। একই সঙ্গে নেপালে চালু হলো ভারতীয় ‘রুপে’ কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটা। এর আগে সিঙ্গাপুর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ভুটানে ‘রুপে’ কার্ড চালু হয়েছে।

দেউবা পাঁচবার নেপালের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। প্রত্যেকবার প্রধানমন্ত্রী হয়ে তিনি ভারতে সফর করেছেন। গত জুলাইয়ে পঞ্চমবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এটাই তাঁর প্রথম ভারত সফর। স্ত্রী আরজু ছাড়াও তাঁর সঙ্গে এসেছে উচ্চপর্যায়ের এক প্রতিনিধিদল। রয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নারায়ণ খাড়কাসহ চার মন্ত্রী, উচ্চপদস্থ আমলা ও ব্যবসায়ীরা। রোববার দলসহ বারানসি যাবেন দেউবা।

হায়দরাবাদ হাউসে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর মোদি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেউবা ও তিনি ঠিক করেছেন, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যসহ সব ধরনের যোগাযোগ বাড়ানো হবে। জয়নগর–কুরথা রেলপথ এরই অংশ। তিনি বলেন, শান্তি, উন্নতি ও প্রগতির পথে নেপালের যাত্রায় ভারত সব সময়ের সহযাত্রী।

দেউবা বলেন, নেপালের প্রতি ভারতের মৈত্রী আজকের নয়। তাঁর সফর এই সম্পর্কের ধারাবাহিকতাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। কোভিড নিয়ন্ত্রণে ভারতের ভূমিকা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রতিষেধক দিয়ে ভারত যেভাবে নেপালকে সাহায্য করেছে, তাতে তাঁরা কৃতজ্ঞ।

নেপাল সে দেশের বিভিন্ন জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে উৎপাদিত বিদ্যুতের উদ্বৃত্ত ভারতকে দিচ্ছে। মোদি বলেন, নেপালের জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে ভারতীয় সংস্থার যোগদান বাড়াতে তাঁরা রাজি হয়েছেন। ওই দেশ থেকে আরও বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে। টেকসই উন্নয়নের জন্য নেপাল আন্তর্জাতিক সোলার অ্যালায়েন্সের সদস্য হয়েছে। নেপালের দুর্গম জেলাগুলোতে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর জন্য ভারতীয় অর্থানুকূল্যে তৈরি ‘সোলু করিডর ট্রান্সমিশন’ প্রকল্প আজ নেপালকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে দেউবার ভারত সফরে আসার কথা ছিল। ঠিক ছিল গুজরাটে ‘বিজনেস সামিট’–এ যোগ দেবেন। কিন্তু কোভিডের কারণে সেই সম্মেলন বাতিল হয়ে যায়। গত মাসের ২৫ থেকে ২৭ তারিখ চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই নেপাল সফর করেন। এর পরপরই দেউবার ভারতে আসা দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের দিক থেকে তাৎপর্যপূর্ণ মনে করা হচ্ছে।




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি