২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অমিক্রন বিপজ্জনক, বিশেষ করে যাঁরা টিকা নেননি: ডব্লিউএইচও

আপডেট : জানুয়ারি ১৩, ২০২২ ১:০৬ অপরাহ্ণ

7

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

করোনাভাইরাসের অমিক্রন ধরন বিপজ্জনক, বিশেষ করে যাঁরা টিকা নেননি তাঁদের জন্য। স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার এসব তথ্য জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি বলেছে, বিশ্বজুড়ে করোনার অমিক্রন ধরনের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। তবে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।

ডব্লিউএইচওর প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেছেন, ডেলটার চেয়ে অমিক্রনে আক্রান্ত রোগীর অসুস্থতা তুলনামূলক কম হলেও অমিক্রন বিপজ্জনক। বিশ্বের বহু মানুষ করোনার টিকা নেননি। তাই নিশ্চিন্ত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তিনি বলেন, আফ্রিকায় এখনো ৮৫ শতাংশের বেশি মানুষ এক ডোজ টিকাও পাননি। টিকা নিয়ে এই বৈষম্য দূর করতে না পারলে মহামারি পুরোপুরি শেষ হবে না।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরের মধ্যে ১০ শতাংশ, ডিসেম্বরের মধ্যে ৪০ শতাংশ ও ২০২২ সালের মাঝামাঝি প্রতিটি দেশের ৭০ শতাংশ মানুষকে টিকা দিতে চান বলে জানিয়েছিলেন তেদরোস। গতকাল তিনি বলেছেন, এখনো ৯০টি দেশ ৪০ শতাংশ ও এর মধ্যে ৩৬টি দেশ ১০ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে পারেনি।

ডব্লিউএইচওর প্রধান আরও বলেন, এখন বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যাঁরা হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন, তাঁদের বেশির ভাগ করোনাভাইরাসের টিকা নেননি। তবে তিনি এটাও বলেছেন যে টিকা করোনায় গুরুতর অসুস্থতা ও মৃত্যু ঠেকাতে খুব কার্যকর হলেও ভাইরাসটির সংক্রমণ প্রতিরোধের পূর্ণ সক্ষমতা টিকার নেই।

তেদরোস বলেন, সংক্রমণ যত বাড়বে, হাসপাতালে ভর্তি, মৃত্যু ও ঘরবন্দী মানুষের সংখ্যাও তত বাড়বে। এর মধ্যে শিক্ষক ও স্বাস্থ্যকর্মীও রয়েছেন। এ ছাড়া এতে করে অমিক্রনের চেয়ে আরও বেশি মাত্রায় সংক্রামক ও আরও প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের নতুন কোনো ধরন আসার ঝুঁকি তৈরি হবে।

সূত্র: প্রথম আলো