২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

তৃতীয় দেশের নাগরিকদের জন্য গ্ৰিসে প্রবেশ নিষেধ ১০ই জানুয়ারি পর্যন্ত

আপডেট : ডিসেম্বর ১৮, ২০২১ ৭:৫৯ অপরাহ্ণ

43

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

গ্রিসে ভ্রমণকারীদের প্রবেশের জন্য রবিবার ১৯ ডিসেম্বর থেকে কার্যকরী নতুন ব্যবস্থাগুলি আজ প্রকাশ করেন।মূলত করোনাভাইরাসের ওমিক্রন মিউটেশনের বিস্তার রোধ করার লক্ষে।

অন্যান্য বিষয়গুলির মধ্যে, এটি সতর্কতার জন্য সমস্ত তৃতীয় দেশের নাগরিকদের গ্ৰিসে প্রবেশের যে কোন স্থান থেকে এবং যে কোনও উপায়ে বা আকাশ, সমুদ্র, রেল এবং সড়ক যোগাযোগ সহ যে কোন উপায়ে প্রবেশের সাময়িক নিষেধাজ্ঞার ব্যবস্থা করেছেনজনস্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য। গ্রীক অঞ্চলে করোনাভাইরাসের আরও বিস্তার যাতে না হয় সেজন্য সরকারি এ ব্যবস্থা নিয়েছে। অন্যান্য দেশের যারা আছেন তাদের ক্ষেত্রে নিম্ন ব্যবস্থা নিয়েছে।

গ্রীসে সকল ভ্রমণকারী, তাদের যোগাযোগের বিশদ সহ ইলেকট্রনিক ঠিকানা https://travel.gov.gr-এ ইলেকট্রনিক ফর্ম PLF (প্যাসেঞ্জার লোকেটার ফর্ম) পূরণ করে . PLF ইলেকট্রনিক ফর্ম পূরণের প্রমাণ, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সিস্টেম দ্বারা যাত্রীকে ই-মেইলের মাধ্যমে পাঠানো হবে, একটি প্রয়োজনীয় ভ্রমণ নথি হিসাবে বিবেচিত করা হবে।একটি PLF ফর্ম, একটি QR কোড সহ, দেশের যেকোনো প্রবেশদ্বারে প্রবেশের জন্য প্রয়োজন হবে সকলের।

বাংলাদেশে জারা পারাতাসি নিয়ে গেছেন সবাই জানেন যে পাড়াতিসির মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকার করেছে। যেহেতু সরকার তৃতীয় দেশের নাগরিকদের গ্ৰিসে প্রবেশ করতে দিবে না ১৯ শে ডিসেম্বর থেকে ১০ই জানুয়ারি পর্যন্ত তাই তারা ৩১ শে জানুয়ারি পর্যন্ত সকল ভেবোওসি আধিয়া পারামনির মেয়াদ উত্তীর্ণ কাগজের পারাতাসি বাড়িয়ে দিয়েছে। যারা দেশে গিয়েছেন টেনশন করবেন না আগামী ১০ জানুয়ারি পরে আপনারা গ্ৰিসে প্রবেশ করতে পারবেন । যারা ভেবোওসি নিয়ে দেশে গিয়েছেন আপনার ট্রাভেল এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করুন। যেহেতু আপনি দশই জানুয়ারির ভিতরে গ্রীসে প্রবেশ করতে পারতেছেন না। পরবর্তীতে সরকার যেকোনো সিদ্ধান্ত নিলে যত দ্রুত পারি আপনাদের জানানো হবে।

কামরুজ্জামান ভূঁইয়া ডালিম
গ্রিস