৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যেভাবে হবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা

আপডেট : জুলাই ২৭, ২০২১ ২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

143

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

এবারের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা কীভাবে নেওয়া হবে, সে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে। সোমবার এক জরুরি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড জানিয়েছে, এবার এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানে তিনটি বাদে অন্যান্য আবশ্যিক বিষয় এবং চতুর্থ বিষয়ের কোনো পরীক্ষা হবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চলতি বছর এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুধু গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষার সময় ও নম্বর হ্রাস করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রহণ করা হবে। আবশ্যিক বিষয় ও চতুর্থ বিষয়ের কোনো পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না।

বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশে জেএসসি ও সমমান এবং এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে ‘বিষয় ম্যাপিং’ করে আবশ্যিক ও চতুর্থ বিষয়ের নম্বর দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ড অনুযায়ী চতুর্থ বিষয়ের নম্বর সাবজেক্ট ম্যাপিং–এর মাধ্যমে এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষা–২০২১–এর ফলাফলে নম্বর প্রদান করা হবে। এতে উচ্চশিক্ষায় ভর্তিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না। এ মুহূর্তে চতুর্থ বিষয় পরিবর্তন বা সংশোধনের সুযোগ নেই বলেও জানিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

করোনা সংক্রমণ না কমায় চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের এবং এইচএসসি ও সমমানের সব বিষয়ের পরীক্ষা না নিয়ে বিভাগভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক পরীক্ষা নেওয়ার ঘোষণা আগেই দিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি আরও জানিয়েছিলেন, করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে এলে চলতি বছরের নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে। আর ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হতে পারে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।

প্রতিবছর ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি ও সমমান এবং এপ্রিলে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। করোনা মহামারির কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলছে। করোনার সংক্রমণ না কমায় গত বছরের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছিল।

এবারও পরীক্ষা বাতিলের পরিস্থিতি দেখা দিয়েছিল। কেননা দেশে করোনার সংক্রমণ গত বছরের তুলনায় বেড়েছে। বেড়েছে করোনায় মৃত্যুও। এই পরিস্থিতিতে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছেন, দেশে এখন করোনা সংক্রমণের যে হার ও মৃত্যুর যে সংখ্যা রয়েছে, তাতে এ মুহূর্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার মতো পরিস্থিতি নেই। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং বিষয়, সময় ও নম্বর কমিয়ে এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর এ বছরের জেএসসি পরীক্ষার বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সূত্র – প্রথম আলো




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি