৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পশ্চিমবঙ্গে আবার ক্ষমতায় ফিরছে তৃণমূল!

আপডেট : মে ২, ২০২১ ৪:১৭ অপরাহ্ণ

135

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার ২৯২ আসনের ফলাফল গণনা চলছে এখনো। শুরু হয়েছে সকাল আটটায়। তবে এখন পর্যন্ত আটটি আসনেরই চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে।

দু’‌জনেই দাবি করেছিলেন ২০০ আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসবেন। কিন্তু বেলা যত গড়াচ্ছে তত দেখা যাচ্ছে বাংলা নিজের মেয়েকেই চাইছে। অর্থাৎ তৃণমূল কংগ্রেস ২০০ আসন পার করে এগোচ্ছে। হিন্দুস্তান টাইমস-এর এক প্রতিবেদনে এমনই আভাস দেওয়া হয়েছে।

আনন্দবাজার পত্রিকার হিসাবে মমতা জিততে চলেছেন ২০৭ আসন। বিপরীতে বিজেপি পেতে পারে ৮১টি। একই হিসাব দিয়েছে এবিপি আনন্দ। অবশ্য বুথফেরত সমীক্ষা তৃণমূল কংগ্রেসকে এগিয়ে রাখলেও এতটা এগিয়ে রাখেনি।

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আসনে নন্দীগ্রাম। সেখানে দীর্ঘ সময় এগিয়ে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে বেলা দুইটার পর থেকে পরিস্থিতি পাল্টাতে থাকে। সর্বশেষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিদ্বন্দ্বী শুভেন্দু অধিকারীর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন প্রায় ৮ হাজার ভোটে। দলীয় প্রধানের সঙ্গে বিজয়ের পথে রয়েছে তৃণমূল।

এখন স্পষ্ট, বিজেপি হারতে চলেছে। আর দলটি কার্যত তৃণমূলের কাছে হার স্বীকার করে নিয়েছে। ইতিমধ্যে তৃণমূল জয়ের পথে থাকায় বিজেপির সর্বভারতীয় সম্পাদক ও পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বে থাকা বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বিজেপির পরাজয় মেনে নিয়েছেন।

চূড়ান্ত ফল ঘোষণার আগেই কৈলাস সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘জয় হলে সেটা মমতারই জয় হয়েছে।’ তবে তিনি এ কথাও বলেছেন, বাবুল সুপ্রিয় ও লকেট চট্টোপাধ্যায়ের পরাজয়কে তিনি মেনে নিতে পারছেন না।

এদিকে মমতার এই বিপুল বিজয়ে উত্তর প্রদেশের সমাজবাদী পার্টির নেতা ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব মমতাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, ‘বিজেপির ঘৃণার রাজনীতিকে হারালেন মমতা। অভিনন্দন মমতাকে।’

এদিকে এখনো চলছে গণনা। এখন ছয় থেকে সাত রাউন্ডের গণনা শেষ হয়েছে। তবে ২৯২ আসনের মধ্যে সর্বশেষ বেলা দুইটায় এবিপি আনন্দ তাদের সর্বশেষ বুলেটিনে বলেছে, ২০৭ আসনে এগিয়ে আছে তৃণমূল, আর বিজেপি এগিয়ে আছে ৮১টি আসনে। অন্যদিকে, সংযুক্ত মোর্চা এগিয়ে আছে ২টি আসনে। রিপাবলিক বাংলা টিভি বলেছে, তৃণমূল এগিয়ে আছে ১৯১টি আসনে। বিজেপি ৯৩টি আসনে এবং সংযুক্ত মোর্চা এগিয়ে আছে ৩টি আসনে।

এ অবস্থায় অমিত শাহরা যে বারবার দাবি করছিলেন ২০০ আসন নিয়ে বাংলায় পরিবর্তনের সরকার গড়বে বিজেপি, তা কার্যত ব্যর্থ হতে চলেছে। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের ফলে দেখা যাচ্ছে তৃতীয় শক্তি নিঃশেষ হতে চলেছে। বাম-কংগ্রেসের অস্তিত্ব সংকট তীব্রতর হতে চলেছে।

২০১৬ সালের নির্বাচনে বাম-কংগ্রেস জোট পেয়েছিল ৭৭টি আসন। সেই নিরিখে এখন অস্তিত্ব রক্ষাই সংকট হয়ে দাঁড়াচ্ছ। যত ভোট গণনা এগোচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস ব্যবধান বাড়াচ্ছে। এই ফলই যদি শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়, তাহলে বিজেপিকে যে বাংলা রিজেক্ট করেছে, তা পরিষ্কার হয়ে যাবে।




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি