১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চামড়া কিনতে শুরু করেছেন ট্যানারি মালিকরা, দাম নিশ্চিতে ভোক্তা অধিদফতরের অভিযান

আপডেট : আগস্ট ৮, ২০২০ ৮:১৪ অপরাহ্ণ

195

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

কোরবানির পশুর লবণযুক্ত চামড়া কেনা শুরু করে‌ছেন ট্যানারি মালিকরা। এবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় গত বছরের তুলনায় সর্বোচ্চ ২৯ ভাগ কমিয়ে কোরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করেছে। ঢাকায় লবণযুক্ত প্রতি বর্গফুট গরুর চামড়া ৩৫-৪০ টাকা, ঢাকার বাইরে ২৮-৩২ টাকা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। গত বছর ঢাকায় প্রতি বর্গফুট চামড়ার মূল্য ছিল ৪৫-৫০ টাকা এবং মফস্বলে ৩৫-৪০ টাকা। সারাদেশে খাসির চামড়ার মূল্য ধরা হয়েছে এবার ১৩-১৫ টাকা, গত বছর ছিল ১৮-২০ টাকা। বকরির চামড়া ১০-১২ টাকা, গত বছর ছিল ১৩-১৫ টাকা।

কিন্তু বাস্তবে ভিন্ন চিত্র। এবারও কোরবানির চামড়ার বাজারে বড় ধরনের ধস নেমেছে। খোদ রাজধানীতে প্রতি পিস গরুর চামড়া কেনা-বেচা হয়েছে মাত্র ২০০ থেকে ৪০০ টাকায়, যা সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অনেক কম।

তবে ট্যানারি মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত উল্লাহ বলেন, ট্যানারিগু‌লো তাদের সু‌বিধামতো লবণযুক্ত চামড়া সংগ্রহ শুরু করে‌ছে। সরকার নির্ধারিত দামেই আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে লবণযুক্ত চামড়া কেনা হচ্ছে। চামড়ার মান অনুযায়ী দাম দেয়া হ‌চ্ছে।

এদিকে সরকার নির্ধা‌রিত মূল্যে লবণযুক্ত চামড়া বি‌ক্রি হচ্ছে কি না তা তদারকি করতে অভিযান পরিচালনা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

শ‌নিবার (৮ আগস্ট) ঢাকার অদূরে সাভারের আমিনবাজার এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল।

অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহার নি‌র্দেশনায় আমরা সাভারের আমিনবাজার এলাকায় বি‌ভিন্ন আড়তে অ‌ভিযান ক‌রি। ট্যানা‌রিগু‌লো কোরবানির পশুর লবণযুক্ত চামড়া কেনা শুরু করে‌ছে। ট্যানা‌রির মা‌লিকরা সরকার নির্ধা‌রিত মূল্যে চামড়া কিন‌ছেন কি না তা তদার‌কি করা হয়। এখন সী‌মিত প‌রিস‌রে লবণযুক্ত চামড়া বি‌ক্রি শুরু হ‌য়ে‌ছে। তিনি জানান, তিনি যেসব আড়তে গেছেনসব জায়গায় সঠিক দা‌মে চামড়া বি‌ক্রির কথা জানিয়েছেন ট্যানারি মালিকরা। অভিযান চলবে, কোনো অনিয়ম বা অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।




স্মৃতি ও স্মরণ

ছবি