২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাবেক প্রতিমন্ত্রী খালেদুর রহমান টিটো মারা গেছেন

আপডেট : জানুয়ারি ১০, ২০২১ ৭:১৭ অপরাহ্ণ

8

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

যশোরের প্রবীণ রাজনীতিক সাবেক  ও প্রতিমন্ত্রী খালেদুর রহমান টিটো (৭৫) মৃত্যুবরণ করেছেন। আজ রোববার বিকেলে যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) ডা. নাসির উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহতের ছেলে অ্যাডভোকেট খালিদ হাসান জিউস জানান, ফুসফুসে ইনফেকশনজনিত কারণে তিনদিন আগে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ রোববার সকাল দশটার দিকে অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। বিকেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। 

খালেদুর রহমান টিটো ১৯৪৫ সালের ১ মার্চ কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মরহুম অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান। তিনি একজন এমএ, বিএল ছিলেন।

রাজনৈতিক সহকর্মী ও পরিবার সদস্যদের দেওয়া তথ্য মতে, খালেদুর রহমান টিটোর শিক্ষাজীবন শুরু হয় যশোর জিলা স্কুলে। ১৯৬০ সালে এখান থেকে তিনি ম্যাট্রিক পাশ করেন। ১৯৬৩ সালে ঢাকার কায়েদে আজম কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করেন। ১৯৬৭ সালে কারাগারে অবস্থানকালে যশোর এমএম কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন করেন।

খালেদুর রহমান টিটো ১৯৬৩ সালে যশোর এমএম কলেজ ছাত্র ইউনিয়নে সম্পৃক্ততার মাধ্যমে রাজনীতিতে সক্রিয় হন। ১৯৬৭ সালে কলেজের লেখাপড়া শেষে করে তিনি বামধারার শ্রমিক রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। ১৯৮৪ সালে যশোর পৌরসভার নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

১৯৮৬ সালে তিনি জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৭ সালে তিনি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হন। ১৯৯০ সালের মে মাসে তিনি শ্রম ও জনশক্তি প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। সরকার পতনের পর ১৯৯১ সালে তাকে জেলে যেতে হয়। ১৯৯১ এর শেষে জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হন।

সূত্র: দি ডেইলি স্টার