৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাবেক ডেপুটি গভর্নর সুর চৌধুরী ও শাহ আলমের সস্ত্রীক ব্যাংক হিসাব তলব

আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ

10

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর ও উপদেষ্টা সীতাংশু কুমার সুর চৌধুরী (এস কে সুর চৌধুরী) এবং বর্তমান নির্বাহী পরিচালক শাহ আলমের ও তাদের দু’জনের স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব তলব করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআরের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেল (সিআইসি)। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) হিসাবের তথ্য চেয়ে সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে তথ্য দিতে চিঠিতে অনুরোধ করা হয়েছে। এনবিআর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অবশ্য বাংলাদেশ ব্যাংকের শীর্ষ এ দুই কর্মকর্তার আর্থিক কেলেঙ্কারি তদন্ত করছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

চিঠিতে এস কে সুর চৌধুরী ছাড়াও তার স্ত্রী সুপর্ণা সুর চৌধুরীর ব্যাংক হিসাবের তথ্য চাওয়া হয়েছে।

সিআইসি’র চিঠিতে বলা হয়, এস কে সুর চৌধুরী, তার স্ত্রী সুপর্ণা সুর চৌধুরী, শাহ আলম ও তার দুই স্ত্রী শাহীন আক্তার শেলী ও নাসরিন বেগম। এ করদাতা ও তাদের পরিবারের অন্যান্য সদস্য, স্ত্রী, সন্তানের এক বা যৌথ নামে অথবা তাদের আংশিক ২মালিকানাধীন অন্য যেকোনও প্রতিষ্ঠানের নামে যেকোনও মেয়াদে আমানত হিসাবের (এফডিআর হিসাবসহ যে কোনও ধরনের বা নামের মেয়াদি আমানত হিসাব) তথ্য দিতে বলা হয়েছে। এছাড়া যেকোনও ধরনের বা মেয়াদের সঞ্চয়ী হিসাব, চলতি হিসাব, ঋণ হিসাব (মঞ্জুরি পত্রের কপিসহ), ফরেন কারেন্সি অ্যাকাউন্ট, ক্রেডিট কার্ড, লকার বা ভল্ট, সঞ্চয়পত্র বা অন্য যে কোনো ধরনের সেভিংস ইন্সট্র–মেন্ট। ইনভেস্টমেন্ট স্কিম বা ডিপোজিট স্কিম, শেয়ার হিসাব (বিও অ্যাকাউন্ট) বা অন্য যে কোনও ধরনের বা নামের হিসাব পরিচালিত হয়ে থাকলে সেই হিসাবগুলোর ২০১৩ সালের ১ জুলাই থেকে হালনাগাদ হিসাব বিবরণী। এছাড়া আগে ছিল কিন্তু বর্তমানে বন্ধ এরূপ হিসাবের তথ্যও পঠাতে বলা হয়েছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে এসব তথ্য সিআইসিকে পাঠাতে অনুরোধ করা হয়েছে। আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪-এর ১১৩ (এফ) ধারার ক্ষমতা বলে এসব তথ্য চাওয়া হয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে, পিপলস লিজিং, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, এফএস ফাইন্যান্স ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্সসহ পাঁচটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে বিভিন্ন অনিয়মের মাধ্যমে অর্থ পাচার করেছে প্রশান্ত কুমার হালদারের (পি কে হালদার) নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। সম্প্রতি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন পিপলস লিজিংয়ের সাবেক চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দী। তিনি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কয়েক কর্মকর্তার নাম বলেছেন। অর্থ লোপাটে জড়িত হিসেবে শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেটের পরিচালক (অর্থ) আরেফিন শামসুল আলামিন, প্রতিষ্ঠানের সাবেক চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন (অব.) মোয়াজ্জেম, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও বর্তমানে নির্বাহী পরিচালক শাহ আলমের নাম উল্লেখ করেন।

সুত্র: বাংলা ট্রিবিউন




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *