১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সাকিব-মোস্তাফিজের কী হবে, জানতে চেয়েছে বিসিবি

আপডেট : মে ৩, ২০২১ ৭:৩০ অপরাহ্ণ

13

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

শ্রীলঙ্কা সফর শেষে কালই দেশে ফিরবে বাংলাদেশ দল। তবে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো শ্রীলঙ্কা থেকে যাবেন দক্ষিণ আফ্রিকা। তিনি ঢাকায় আসবেন আরও পরে। ওদিকে আইপিএল শেষ করে সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানের দেশে ফেরার কথা ১৯ মে।

কিন্তু করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের সর্বশেষ নির্দেশনা অনুযায়ী ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকাফেরতদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক। সে ক্ষেত্রে ভারত থেকে সাকিব, মোস্তাফিজ এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ডমিঙ্গো দেশে ফেরার পর তাঁদেরও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে কি না, তা নিয়ে চিন্তায় আছে বিসিবি।

এ মাসের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ওয়ানডের হোম সিরিজের জন্য দেশে ফিরে অনুশীলনে যোগ দেওয়ার কথা তাঁদের। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হলে বাধাগ্রস্ত হবে সেটি। এ ব্যাপারে করণীয় ঠিক করতে সরকারের নির্দেশনা চেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী আজ বলেছেন, ‘তাদেরও কি নির্দেশনা অনুযায়ী ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে, নাকি তিন দিনের কোয়ারেন্টিনেই চলবে, এ ব্যাপারে আমরা সরকারের নির্দেশনা জানতে চেয়েছি। যেহেতু আইপিএলে সাকিব, মোস্তাফিজ এবং জাতীয় দলের সঙ্গে ডমিঙ্গো জৈব সুরক্ষাবলয়ের মধ্যেই আছেন, তাঁদের ক্ষেত্রেও ১৪ দিনের নিয়ম প্রযোজ্য কি না, আমরা তা জানতে চেয়েছি। সরকার যেভাবে বলবে সেভাবেই আমরা অগ্রসর হব।’

ভারতসহ অনেক দেশের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় আছে ভ্রমণজটিলতাও। কলকাতা নাইটরাইডার্সের সাকিব ও রাজস্থান রয়্যালসের মোস্তাফিজকে দেশে ফিরতে হতে পারে বিশেষ ব্যবস্থায়।

কাল শ্রীলঙ্কা থেকে ফিরে কোয়ারেন্টিন বিধিনিষেধের মধ্য পড়তে হতে পারে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদেরও। এ ছাড়া ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসে শ্রীলঙ্কা দলের কোয়ারেন্টিন নীতি কী হবে, সিরিজের সম্প্রচারকাজে যারা আসবেন, তাদের বেলায়ই–বা কী করণীয়, এসব ব্যাপারেও সরকারের নির্দেশনা জানতে চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী। ‘এমনিতে আমাদের ৭ দিনের কোয়ারেন্টিনের একটা নীতি আছে। তিন দিন রুম কোয়ারেন্টিন ও চার দিন ছোট ছোট ভাগে ভাগ হয়ে কোয়ারেন্টিন। আমরা জানতে চেয়েছি শ্রীলঙ্কা সিরিজের সময় যাঁরা বাইরে থেকে আসবেন তাঁদের এভাবে কোয়ারেন্টিন করলেই চলবে নাকি সরকারের নির্দেশমতো যেতে হবে’—বলেছেন নিজাম উদ্দিন চৌধুরী।

সূত্র: প্রথম আলো




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *