৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রসঙ্গঃ মসজিদ ও শপিং মল খোলা-বন্ধ

আপডেট : জুন ১, ২০২০ ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

335

মাইনুল ইসলাম, ফিনল্যান্ড থেকে

কিছু বিষয়ে হিসাব মেলানো কঠিন হয়ে যাচ্ছে। সমস্যাটা আসলে কোথায়?
মসজিদ খুলে দিলে বলবেন আলহামদুলিল্লাহ আর শপিং মূল খুলে দিলে সরকারের চৌদ্দগোষ্ঠী উদ্ধার করবেন, কারণটা কি?মসজিদ কি করোনা প্রুভ? সৌদি আরবের মক্কা মদিনা কি করোনা প্রভাবে বন্ধ করা হয়নি। এ বছর হজ্জ হবে কিনা তা নিয়েওতো চিন্তা ভাবনা চলছে। এসব নিয়ে কোন হৈ চৈ নেই। কেবল বাংলাদেশেই অন্য রকম আলোচনা। কিন্তু কেন হবে এমনটা?

মসজিদের সাথে মানুষের জীবন জীবিকার কোন সম্পর্ক নাই, নামাজ ঘরেও পড়া যায়। শপিংমলের সাথে লাখ লাখ মানুষের জীবন জীবিকা জড়িত।

ফিনল্যাণ্ড করোনার কারণে উপসানালয় সহ অনেক কিছু বন্ধ করলেও শুরু থেকে এখন পর্যন্ত শপিং মল ঠিকই খোলা রেখেছে। বাস্তবতা কি জানেন? ক্রেতার অভাবে মলের অর্ধেকেরও বেশি দোকান বন্ধ।অথচ এখানে কিন্তু ঘর থেকে বের হওয়া নিষেধ না।এখানের মানুষগুলো নিজেই নিজেকে যতটা সম্ভব সেইভে রাখছে, যার কারণে তুলুনামূলক আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কম।

বাংলাদেশে শপিং মল খুলে দিচ্ছে দিক, আপনার সমস্যা কি? আপনি নিজে না গেলেই তো হলো।

লকডাউনের সময় মাছের ঝুড়িতে, ত্রিপল দিয়ে ঢাকা ট্রাকের ভিতরে মানুষদের অভিনব মুভমেন্ট আমরা দেখেছি।হাজার হাজার মানুষের খতমে শেফা দেখেছি, জানাজায় লাখ মানুষের জমায়েত দেখেছি, থানকুনি পাতা, রং চা, পান খেয়ে করোনা ‘প্রতিরোধ’ করতে দেখেছি।সরকারের এত চেষ্টার পরও বিনা প্রয়োজনে কিছু মানুষের অভিনব মুভমেন্ট দেখে কি মনে হয়?

আসলে যে বের হবার সে হবেই আর যে ঘরে থাকার সে থাকবেই। এটাই হচ্ছে বাস্তবতা।