১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

থাইল্যান্ডের পাতায়ার মুসলিম এলাকায় নামমাত্র মূল্যে ইফতারি বিক্রি করেন এক বাংলাদেশী, উদ্দেশ্য রোজাদারদের খেদমত করা

আপডেট : এপ্রিল ২৯, ২০২১ ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ

53

কামরুল আলম রানা, থাইল্যান্ড থেকে

থাইল্যান্ডের পর্যটন নগরী পাতায়ার মুসলিম এলাকায় থাই ইন্ডিয়ান,পাকিস্তানী ও বাংলাদেশীদের কাছে জনপ্রিয় রেস্টুরেন্ট আশিক বিরিয়ানি হাউজ। দোকানের মালিক বাংলাদেশের তাওফিকুর রহমান। জীবিকার সন্ধানে তিনি ২৫ বছর আগে থাইল্যান্ডে আসেন। জীবনসঙ্গিনী হিসেবে বিবাহ করেছেন থাইল্যান্ডে। তাদের সুখের সংসারে আছে ২ মেয়ে ও এক ছেলে।

দেশের প্রতি ভালবাসা থেকে তিনি রেস্টুরেন্টের রং করেছেন লাল সবুজ। তার সন্তানরা থাই নাগরিক হলেও তাদের দিয়েছেন বাংলা ভাষার ও আরবি শিক্ষা।

তাওফিকুর রহমান সাহেবের রেস্টুরেন্টটি মুসলিম এলাকার দুইটি মসজিদের খুব কাছাকাছি হওয়ায় তিনি পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে রোজাদারদের খেদমতে নামমাত্র মূল্য ইফতারি বিক্রি করেন।

এ বিষয় আশিক বিরিয়ানি হাউজ এর মালিক তাওফিকুর রহমান জানান আল্লাহর ইচ্ছায় ১১ মাস তো ব্যবসা করি, একমাস না হয় আল্লাহর রাজী খুশীর জন্য রোজাদারদের খেদমত জন্য কম ব্যবসা করলাম।

তার এমন উদ্যোগে এলাকার মুসলমান ও রোজদারা অনেক খুশি। রোজার জন্য খাবারের দাম কমিয়ে দিলেও খাবারের মান ঠিকই আগের মত রেখেছেন।