৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ২০ কিলোমিটার যানজট, ঘরমুখো মানুষের দুর্ভোগ

আপডেট : জুলাই ৩১, ২০২০ ৫:৫৯ অপরাহ্ণ

4

ভয়েস বাংলা ডেস্ক

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রায় ২০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। পাটুরিয়া ঘাট এলাকা থেকে মানিকগঞ্জের তরা সেতু পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার যানজটে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন ঈদে ঘরমুখী হাজারো মানুষ। মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে আজ শুক্রবার সকাল পর্যন্ত তিন ঘণ্টা ফেরিতে যানবাহন ওঠানামা বন্ধ ছিল। এ ছাড়া যাত্রী ও যানবাহনের অস্বাভাবিক চাপের কারণে গতকাল মধ্যরাত থেকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

প্রথম আলো জানায়, গতকাল সন্ধ্যার পর থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ঈদের ঘরমুখী যাত্রীবাহী বিভিন্ন যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। নদী পারাপারের যাত্রীবাহী বাসের চেয়ে লোকাল বাসের চাপ বেশি। এসব গাড়ি পাটুরিয়ায় যাত্রী নামিয়ে আবার ঢাকার দিকে রওনা দেওয়ার সময় এলোপাতাড়িভাবে চলাচলের কারণে পথ আটকে যায়। এ ছাড়া কোরবানির পশুবাহী গাড়ির কারণেও মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়ায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

বরঙ্গাইর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাসুদেব সিনহা বলেন, পাটুরিয়ায় ফেরিতে যানবাহন পারাপারে বিঘ্ন এবং অতিরিক্ত গাড়ির চাপের কারণে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আজ সকাল নয়টা পর্যন্ত পাটুরিয়া থেকে তরা পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত এই যানজট বিস্তৃত ছিল। তবে এরপর থেকে যানজট কমে আসতে শুরু করেছে।

গতকাল সন্ধ্যার পর থেকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় ঈদে ঘরমুখী মানুষ ও যাত্রীবাহী বাসের চাপ বেড়ে যায়। রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীবাহী কোচ ও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপও বাড়তে থাকে। ফেরিতে আগে ওঠার প্রতিযোগিতায় কারণে রাত দুইটার পর থেকে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। এতে ফেরিঘাট এলাকায় রাস্তা পন্টুন আটকে যায়। এ কারণে গতকাল দিবাগত রাত আড়াইটা থেকে ফেরিতে যানবাহন ওঠানামা বন্ধ হয়ে যায়। এতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়।

বেশ কয়েকজন যাত্রী অভিযোগ করে বলেন, যাত্রী ও যানবাহন পারাপার নিশ্চিত করতে প্রতিবছরই ঈদের আগে ঘাটে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তবে এবার তেমনটা না থাকায় এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা ঘাট এলাকায় আটকে থেকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, ঘাট এলাকায় ফেরি থেকে যানবাহন আনলোড এবং লোড করা বন্ধ থাকায় ঘাট এলাকায় অসংখ্য যানবাহন ও যাত্রীর চাপ পড়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *